ঢাকা,বৃহস্পতিবার,১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮,২৯,জুলাই,২০২১
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * জীবনের সুরক্ষার অনিবার্য প্রয়োজনেই লকডাউন : সেতুমন্ত্রী   * বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে চীন বিশ্বস্ত অংশীদার: প্রধানমন্ত্রী   * দেশবাসীকে ‘কঠোর লকডাউন’ মেনে চলার অনুরোধ তথ্যমন্ত্রীর   * করোনায় একদিনে রেকর্ড মৃত্যু ১৪৩, শনাক্ত ৮৩০১   * অভ্যন্তরীণ সব রুটে বিদেশগামীরা ফ্লাইট সুবিধা পাবে   * লকডাউনের প্রথমদিনেই রাজধানীতে আটক-গ্রেফতার ৭৫৫   * শপথ নিলেন মিন্টু ও হাসেম খান   * রিজার্ভ থেকে ঋণ দিয়ে বাড়তি আয়, মন্দ নয় : অর্থমন্ত্রী   * আরো ৫৩ হাজার ৩৪০টি পরিবারকে বিনামূল্যে ঘর প্রদান করলেন প্রধানমন্ত্রী   * বয়সের কারণে মনে হয় মির্জা ফখরুলের মতিভ্রম ঘটেছে  

   আদালত -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
কুয়েতে পাপুলের আরো ৩ বছরের কারাদণ্ড

অনলাইন ডেস্ক :

মানবপাচার ও অর্থপাচারের দায়ে লক্ষ্মীপুর-২ আসনের সাবেক এমপি শহীদ ইসলাম পাপুলকে আরো তিন বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন কুয়েতের আদালত। একই সঙ্গে তাকে ২০ লাখ কুয়েতি দিনার জরিমানা করা হয়েছে।

সোমবার (২৬ এপ্রিল) কুয়েতের আপিল আদালত পাপুলের বিরুদ্ধে এ রায় দেন। কুয়েতের দৈনিক আল কাবাস ও আল নাহার পত্রিকায় প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ খবর প্রকাশ করা হয়েছে।

কুয়েতের আদালতে পাপুলের বিরুদ্ধে দু’টি মামলা দায়ের করা হয়। এর আগে চলতি বছর ২৮ জানুয়ারি আদালতের বিচারক তাকে চার বছরের কারাদণ্ড ও ১৯ লাখ কুয়েতি দিনার জরিমানা করেন। আজ সোমবার অপর একটি মামলায় তার আরো তিন বছরের কারাদণ্ড ও ২০ লাখ দিনার জরিমানা করা হলো। এ নিয়ে পাপুলের মোট সাত বছরের কারাদণ্ড হলো।

মানব ও অর্থপাচারের অভিযোগে গত বছর ৬ জুন সাবেক এমপি শহীদ ইসলাম পাপুলকে গ্রেফতার করে কুয়েতের পুলিশ। তিনি তারপর থেকেই সে দেশের কারাগারে আটক রয়েছেন। প্রথম দফায় কারাদণ্ড হওয়ায় তার সংসদ সদস্য পদ বাতিল হয়।  

কুয়েতে পাপুলের আরো ৩ বছরের কারাদণ্ড
                                  

অনলাইন ডেস্ক :

মানবপাচার ও অর্থপাচারের দায়ে লক্ষ্মীপুর-২ আসনের সাবেক এমপি শহীদ ইসলাম পাপুলকে আরো তিন বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন কুয়েতের আদালত। একই সঙ্গে তাকে ২০ লাখ কুয়েতি দিনার জরিমানা করা হয়েছে।

সোমবার (২৬ এপ্রিল) কুয়েতের আপিল আদালত পাপুলের বিরুদ্ধে এ রায় দেন। কুয়েতের দৈনিক আল কাবাস ও আল নাহার পত্রিকায় প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ খবর প্রকাশ করা হয়েছে।

কুয়েতের আদালতে পাপুলের বিরুদ্ধে দু’টি মামলা দায়ের করা হয়। এর আগে চলতি বছর ২৮ জানুয়ারি আদালতের বিচারক তাকে চার বছরের কারাদণ্ড ও ১৯ লাখ কুয়েতি দিনার জরিমানা করেন। আজ সোমবার অপর একটি মামলায় তার আরো তিন বছরের কারাদণ্ড ও ২০ লাখ দিনার জরিমানা করা হলো। এ নিয়ে পাপুলের মোট সাত বছরের কারাদণ্ড হলো।

মানব ও অর্থপাচারের অভিযোগে গত বছর ৬ জুন সাবেক এমপি শহীদ ইসলাম পাপুলকে গ্রেফতার করে কুয়েতের পুলিশ। তিনি তারপর থেকেই সে দেশের কারাগারে আটক রয়েছেন। প্রথম দফায় কারাদণ্ড হওয়ায় তার সংসদ সদস্য পদ বাতিল হয়।  

ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণ: মজনুর রায় বৃহস্পতিবার
                                  

অনলাইন ডেস্ক :

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) শিক্ষার্থী ধর্ষণ মামলায় একমাত্র আসামি মজনুর বিরুদ্ধে রায় বৃহস্পতিবার ঘোষণা করা হবে।

ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৭ এর বিচারক বেগম মোসাম্মৎ কামরুন্নাহারের আদালত এই রায় ঘোষণা করবেন।

রায়ে মামলার একমাত্র আসামি মজনুর সর্বোচ্চ সাজা যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হবে বলে আশা করছে রাষ্ট্রপক্ষ।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা বলছেন, মজনুর বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণ করতে তারা সক্ষম হয়েছেন। এছাড়া, আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে ধর্ষণের অভিযোগ স্বীকার করেছেন অভিযুক্ত। তাই রায়ে তার সর্বোচ্চ শাস্তি যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হবে।

এদিকে, মজনুর আইনজীবী (সরকার থেকে নিয়োগপ্রাপ্ত) বলছেন, মজনুর বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ প্রমাণ করতে রাষ্ট্রপক্ষ সক্ষম হয়নি। মামলায় তিনি খালাস পাবেন।

গত ১২ নভেম্বর রাষ্ট্রপক্ষ ও আসামিপক্ষের যুক্তি উপস্থাপন শুনানি শেষে আদালত ১৯ নভেম্বর রায়ের জন্য দিন ধার্য করেন। এর আগে গত ২৬ আগস্ট এ মামলায় মজনুর বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন ভার্চ্যুয়াল আদালত।

প্রসঙ্গত, গত ৫ জানুয়ারি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ওই ছাত্রী ধর্ষণের শিকার হন। পরে ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে ক্যান্টনমেন্ট থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। এরপর গত ৮ জানুয়ারি ক্যান্টনমেন্ট থানাধীন শেওড়া বাসস্ট্যান্ড থেকে র‌্যাব ধর্ষণের ঘটনায় মজনুকে গ্রেপ্তার করে। গত ৯ জানুয়ারি আদালত মজনুর সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। গত ১৬ জানুয়ারি মজনু দোষ স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দেন।

ওসি প্রদীপসহ ২৯ জনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা
                                  

অনলাইন ডেস্ক :

কক্সবাজারের দ্বীপ উপজেলা মহেশখালীর বহুল আলোচিত আবদুস সাত্তার হত্যার ঘটনায় মহেশখালীর জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে। বুধবার দুপুরে ভুক্তভোগী আবদুস সাত্তারের স্ত্রী হামিদা আক্তার বাদী হয়ে মহেশখালী থানার সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশসহ ২৯ জনের বিরুদ্ধে এ মামলা দাযের করেন।

মহেশখালীর সাবেক ওসি প্রদীপসহ পুলিশের পাঁচ সদস্যকেও আসামি করা হয়েছে। তারা হলেন এসআই হারুনুর রশীদ, এসআই ইমাম হোসেন, এএসআই মনিরুল ইসলাম, এএসআই শাহেদুল ইসলাম ও এএসআই আজিম উদ্দিন।

২৯ আসামির মধ্যে প্রধান আসামি হিসেবে রয়েছেন ফেরদৌস বাহিনীর প্রধান ফেরদৌস (৫৬)। তিনি একই এলাকার বাসিন্দা।

মামলার বাদী হামিদা আক্তার জানান, ২০১৭ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি সকাল ৭টার দিকে ফেরদৌস বাহিনীর সহায়তায় হোয়ানকের লম্বাশিয়া এলাকায় তার স্বামী আবদুস সাত্তারকে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় থানায় মামলা নেয়নি। অবশেষে উচ্চ আদালতের শরণাপন্ন হন তিনি। রিট পিটিশন নং-৭৭৯৩/১৭ মূলে ‘ট্রিট ফর এফায়ার‘ হিসেবে গণ্য করতে আদেশ দেন বিচারক।

আদালত সূত্র জানায়, হামিদা বেগমের করা রিটের শুনানি নিয়ে হাইকোর্ট ২০১৭ সালের ৭ জুন আদেশ দেন। এতে বলা হয়, হামিদা বেগম এজাহার দাখিল করলে মহেশখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে তা তাৎক্ষণিক গ্রহণ করতে হবে। এই আদেশ প্রত্যাহার চেয়ে পুলিশ মহাপরিদর্শকের (আইজিপি) পক্ষে হাইকোর্টে আবেদন করা হয়।

অন্যদিকে হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে স্বরাষ্ট্র সচিবের (জননিরাপত্তা বিভাগ) পক্ষে আপিল বিভাগে আবেদন করা হয়। এই আবেদনের শুনানি নিয়ে ২০১৮ সালের ১৩ মে আপিল বিভাগ আদেশ দেন। এতে রুল ইস্যু না করে এজাহার গ্রহণ করতে হাইকোর্টের দেওয়া আদেশ বাতিল করা হয়। একইসঙ্গে ওই রিটটি মোশন (নতুন মামলা) হিসেবে নতুন করে শুনানি করতে বলা হয়।

এদিকে, ওই সময় হাইকোর্টের রিট পিটিশনকারী অ্যাডভোকেট রাশেদুল হক খোকন জানান, উচ্চ আদালত থানায় মামলাটি করার নির্দেশ দেন। কিন্তু পুলিশের আইজিপির পক্ষ থেকে আদেশের স্থগিতের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে তা স্থগিত করেন উচ্চ আদালত।

তিন দিনের রিমান্ডে শারমিন জাহান
                                  

অনলাইন ডেস্ক :

নিম্নমানের মাস্ক সরবরাহের মামলায় গ্রেফতার অপরাজিতা ইন্টারন্যাশনালের মালিক শারমিন জাহানের তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত। দুপুরে আদালতে হাজির করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী রেজিস্টার শারমিন জাহানকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ড চায় পুলিশ। দুপক্ষের শুনানি শেষে মহানগর হাকিম শারমিনের তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। একটি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত থেকে আরেকটি প্রতিষ্ঠানের মালিক হয়ে শারমিন বেআইনী কাজ করেছেন বলে আদলতে বলেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী।

তবে শারমিনের আইনজীবী বলেন, মানবিক কারণেই আরেকটি প্রতিষ্ঠান খোলা হয়েছে। নিম্নমানের মাস্ক সরবরাহের দায়ে বৃহস্পতিবার শারমিন জাহানের বিরুদ্ধে মামলা করে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। শুক্রবার রাতে শাহবাগ এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয় শারমিনকে। এদিকে, রিজেন্ট হাসপাতালের এমডি মিজানুর রহমানকে আদালতে হাজির করে রিমান্ড চায় পুলিশ। আদালত মিজানের দশদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

সুপ্রিম কোর্টে প্রবেশে মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক
                                  

অনলাইন ডেস্ক :

করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে সুপ্রিম কোর্টে আসা সবাইকে বাধ্যতামূলক মাস্ক ব্যবহারের ওপর নির্দেশনা জারি করেছে কোর্ট প্রশাসন। বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল মো. আলী আকবর স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে সুপ্রিম কোর্টে কর্মরত সব কর্মকর্তা ও কোর্টে আগত আইনজীবী, আইনজীবীদের সহকারী ও বিচারপ্রার্থীসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে বাধ্যতামূলকভাবে মাস্ক ব্যবহার করতে হবে।

এর আগে, গত ২১ জুলাই স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ মাস্ক ব্যবহার সংক্রান্ত নির্দেশনা দিয়ে একটি পরিপত্র জারি করে। পরিপত্রে প্রতিটি কর্মস্থলে কর্মরত ব্যক্তি ও জনসমাবেশ চলার সময় জায়গাগুলোতে আবশ্যিকভাবে মাস্ক পরিধানের নির্দেশনা দেয়া হয়।

চিকিৎসা না দিয়ে রোগী ফেরত অভিযোগ তদন্তে হাইকোর্টের নির্দেশ
                                  

অনলাইন ডেস্ক :

চিকিৎসা না দিয়ে রোগী ফেরত পাঠানো হাসপাতালগুলোর বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

স্বাস্থ্য সচিব ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে (ডিজি) অভিযোগগুলো তদন্ত করে আগামী ২১ জুলাইয়ের মধ্যে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়েছে।

সোমবার (৬ জুলাই) বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিমের হাইকোর্ট ভার্চুয়াল বেঞ্চ বেশকিছু নির্দেশনা দিয়ে এ আদেশ দেন।

নির্দেশনাগুলো হলো- চিকিৎসা না দিয়ে ফেরত পাঠানো হলে তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়েরের জন্য স্বাস্থ্য অধিদপ্তর অনলাইনে অভিযোগ গ্রহণের পদ্ধতি চালু করতে হবে। বেসরকারি হাসপাতালে আইসিইউর অস্বাভাবিক মূল্য সংক্রান্ত অভিযোগ পেলে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)’ কে তদন্তে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

আগামী ১০ কার্যদিবসের মধ্যে অক্সিজেনের মূল্য নির্ধারণ করতে বলেছেন আদালত। এছাড়াও ক্যান্সারসহ জটিল রোগের আক্রান্ত রোগীদের কোভিড-১৯ থাকলে ৩৬ থেকে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে টেস্ট করে চিকিৎসা অব্যাহত রাখার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী অনিক আর হক, এডভোকেট ইয়াদিয়া জামান, জামিউল হক ফয়সাল। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন এটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

এডভোকেট ইয়াদিয়া জামান আদালতের আদেশের বিষয় গণমাধ্যমকে জানান। পরবর্তী আদেশের জন্য আগামী ২১ জুলাই দিন ঠিক করে দিয়েছেন আদালত।

এর আগে গত ১৫ জুন হাইকোর্ট পৃথক রিটের ওপর শুনানি শেষে চিকিৎসা না দিয়ে সাধারণ রোগীদের ফেরত পাঠানোর ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেন। আদালত আদেশে অবহেলায় মৃত্যু, আইসিইউ বণ্টন, বেসরকারি হাসপাতাল অধিগ্রহণ, অক্সিজেন সরবরাহ ও ঢাকা সিটি করপোরেশন এলাকা লকডাউন নিয়ে মোট ১১ দফা নির্দেশনা ও অভিমত দেন।

হাইকোর্ট আদেশ বিষয়ে আনা আবেদনের প্রেক্ষিতে এসব নির্দেশনা ও অভিমতের মধ্যে আপিল বিভাগের চেম্বার কোর্ট গত ১৬ জুন ৭টি নির্দেশনা স্থগিত করেন।

ওয়াসার পানির দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্তে হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা
                                  

অনলাইন ডেস্ক :

ঢাকা ওয়াসার পানির দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্তের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছেন হাইকোর্ট। ওয়াসার পানির পরবর্তী বিল থেকে আগামী ১০ আগস্ট পর্যন্ত এই নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকবে।

সোমবার (২২ জুন) হাইকোর্টের বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিমের ভার্চুয়াল বেঞ্চ ওয়াসার পানির দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত চ্যালেঞ্জ করে করা রিটের শুনানি নিয়ে এ আদেশ দেন। আদেশের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রিটকারী আইনজীবী মো. তানভীর আহমেদ।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মো. তানভীর আহমেদ। অন্যদিকে ওয়াসার পক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। তার সঙ্গে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত তালুকদার।

গত ১৫ জুন ওয়াসার পানির দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট করেন আইনজীবী তানভীর আহমেদ। কারণ ছাড়াই পানির দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না তার নির্দেশনা চাওয়া হয় রিটে।

হাইকোর্টের বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিমের ভার্চুয়াল বেঞ্চে ই-মেইলের মাধ্যমে রিট আবেদনটি দাখিল করা হয়। এরপর ১৭ জুন এ-সংক্রান্ত রিটের প্রাথমিক শুনানি শুরু করে আদেশের জন্য ২২ জুন দিন ধার্য করেন। আজ সেটির শুনানি করে আদেশ দেন আদালত।

আইনজীবী তানভীর আহমেদ আরো জানান, ওয়াসার সেবার মান না বাড়িয়ে পানির বিল বাড়ানো হয়েছে। গত ১ এপ্রিল থেকে ঢাকা ওয়াসা আবাসিক গ্রাহকদের পানির বিল ২৫ শতাংশ বাড়িয়েছে। বাণিজ্যিক গ্রাহকের বিল বাড়ানো হয়েছে প্রায় ৮ শতাংশ। নতুন মূল্যহার অনুযায়ী প্রতি হাজার লিটার পানির মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১৪ টাকা ৪৬ পয়সা, যা আগে ছিল ১১ টাকা ৫৭ পয়সা। বাণিজ্যিকে প্রতি হাজার লিটারে ৩৭ টাকা ৪ পয়সা থেকে বাড়িয়ে ৪০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

ঢাকা লকডাউন হবে কিনা, সিদ্ধান্ত সরকারের : হাইকোর্ট
                                  

অনলাইন ডেস্ক :

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে ঢাকা শহরকে লকডাউন করা হবে কিনা, তা সরকারের সিদ্ধান্ত। এ বিষয়ে আদালতের কিছু করার নেই বলে মন্তব্য করেছেন হাইকোর্ট।

আজ রোববার ঢাকা লকডাউন করার আদেশ চেয়ে করা রিটের শুনানিতে বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিমের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্টের ভার্চুয়াল বেঞ্চ এ মন্তব্য করেন। এ রিটের ওপর আদেশের জন্য আগামীকাল সোমবার (১৫ জুন) দিন ধার্য করেন আদালত।

রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন রিটকারী আইনজীবী মনজিল মোরসেদ। গত বৃহস্পতিবার আইনজীবী মাহবুবুল ইসলামের পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের অ্যাডভোকেট মনজিল মোরশেদ এ রিট করেন।

রিট আবেদনে, করোনা সংক্রমণ থেকে বাঁচতে পুরো ঢাকাকে লকডাউন করার ঘোষণা চাওয়া হয়। এ ছাড়া রিটে করোনা চিকিৎসার সুবিধার্থে পর্যাপ্ত হাই ফ্লো নেজাল অক্সিজেন ক্যানোলা সংগ্রহের নির্দেশনা চাওয়া হয়।

রিটে বিবাদী করা হয় মন্ত্রিপরিষদ সচিব, স্বাস্থ্য, অর্থ ও প্রধানমন্ত্রীর সচিবালয়ের সচিব, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দুই অতিরিক্ত সচিব (হাসপাতাল ও প্রশাসন), পুলিশ কমিশনার, র‌্যাবের মহাপরিচালক এবং ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়রকে।

ভার্চুয়াল আদালতে সহস্রাধিক আসামির জামিন
                                  

অনলাইন ডেস্ক :

ভার্চুয়াল মাধ্যমে চলা দেশের অধস্তন আদালতগুলো থেকে বুধবার ১০১৩ জন আসামিকে জামিন দেয়া হয়েছে। পাশাপাশি ভার্চুয়াল হাইকোর্ট থেকে অন্তর্বর্তী জামিন পেয়েছেন আরও ৭ জন। সুপ্রিম কোর্টের মুখপাত্র মোহাম্মদ সাইফুর রহমান বুধবার এতথ্য জানিয়েছেন। এর আগে গতকাল ভার্চুয়াল আদালত থেকে আরো ১৪৪ জন আসামিকে জামিন দেয়া হয়। 

দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে দীর্ঘদিন ধরে আদালত বন্ধ থাকায় অনেক আইনজীবী ভার্চুয়াল আদালত পরিচালনার জন্য সোচ্চার হন। পরবর্তীতে সুপ্রিম কোর্টের উভয় বিভাগের বিচারপতিদের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত ফুল কোর্ট সভা থেকে ভার্চুয়াল আদালত পরিচালনা সংক্রান্ত অধ্যাদেশ জারির জন্য রাষ্ট্রপতিকে অনুরোধ জানানোর সিদ্ধান্ত হয়।

সেই প্রেক্ষাপটে ভার্চুয়াল উপস্থিতিকে স্বশরীরে আদালতে উপস্থিতি হিসেবে গণ্য করে আদালত কর্তৃক তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার অধ্যাদেশ- ২০২০ নামে গত ৯ মে একটি অধ্যাদেশ জারি করেন রাষ্ট্রপতি মোঃ আব্দুল হামিদ।

এরপর প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের আদেশক্রমে গত ১০ মে ভার্চুয়াল আদালত সংক্রান্ত কয়েকটি নির্দেশনা জারি করা হয়। যেখানে ভার্চুয়াল আদালত পরিচালনার জন্য সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ, হাইকোর্ট বিভাগ এবং অধস্তন আদালত ও ট্রাইব্যুনালের জন্য আলাদা আলাদা প্র্যাকটিস নির্দেশনা দেয়া হয়। এছাড়া আইনজীবীদের জন্য প্রকাশ করা হয় ভার্চুয়াল কোর্টরুম ম্যানুয়াল।

এরই ধারাবাহিতায় করোনাভাইরাস কেন্দ্রিক সাধারণ ছুটি ও অবকাশকালীন ছুটি বা পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের চেম্বার আদালত, হাইকোর্ট ও সারাদেশের অধস্তন আদালতগুলো ভার্চুয়াল উপস্থিতির মাধ্যমে পরিচালনার জন্য নির্দেশনা জারি করা হয়। এরপর গতকাল থেকে দেশে ভার্চুয়াল আদালতের কার্যক্রম শুরু হয়।

ভিডিও কনফারেন্সে নিম্ন আদালতে শুধুমাত্র জামিন শুনানির নির্দেশ
                                  

অনলাইন ডেস্ক :

করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে দেশের সব নিম্ন আদালতে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে শুধুমাত্র জামিন শুনানির নির্দেশ দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন।

আজ রবিবার সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল মো. আলী আকবর স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, করোনাভাইরাসের কারণে আগামী ১৬ মে পর্যন্ত আদালত ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। এ অবস্থায় পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত প্রত্যেক জেলা ও দায়রা জজ, মহানগর এলাকার মহানগর দায়রা জজ, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক, বিশেষ জজ, শিশু আদালতের বিচারক, সন্ত্রাস দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক, দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক, জননিরাপত্তা বিঘ্নকারী অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক এবং চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট/ চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট নিজে অথবা তার নিয়ন্ত্রণাধীন এক বা একাধিক ম্যাজিস্ট্রেট দ্বারা অত্র কোর্ট জারিকৃত বিশেষ প্র্যাকটিস নির্দেশনা অনুসরণ করে শুধুমাত্র জামিন সংক্রান্ত বিষয়সমূহ তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে ভার্চুয়াল উপস্থিতির মাধ্যমে নিষ্পত্তি করার উদ্দেশে আদালতের কার্যক্রম পরিচালনার জন্য নির্দেশ প্রদান করা হলো। এই আদেশ পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত বলবৎ থাকবে।

এ দিন সকালে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে ফুল কোর্ট সভায় এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। ফুল কোর্ট সভায় আপিল বিভাগ ও হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতিরা অংশ নেন। সভা শেষে সুপ্রিম কোর্টে বেঞ্চ গঠনের সিদ্ধান্তও গৃহীত হয়।

এর আগে, শনিবার (৯ মে) আদালতে তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার অধ্যাদেশ-২০২০-এর খসড়া নীতিগত ও চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়ে অধ্যাদেশ জারি করেন রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদ। ফলে ভিডিও কনফারেন্সসহ ভার্চুয়াল মাধ্যমে আদালত পরিচালনার পথ খুলে যায়। এতে মামলার বিচার, বিচারিক অনুসন্ধান, দরখাস্ত বা আপিল শুনানি, সাক্ষ্য গ্রহণ, যুক্তিতর্ক গ্রহণ, আদেশ বা রায় প্রদানকালে বিভিন্ন পক্ষের প্রতিনিধিরা ভার্চুয়াল মাধ্যমে উপস্থিত থাকতে পারবেন।

বঙ্গবন্ধুর খুনি মাজেদের ফাঁসি কার্যকর
                                  

অনলাইন ডেস্ক :

প্রায় সাড়ে চার দশক আগে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যায় সরাসরি অংশগ্রহণের দায়ে ক্যাপ্টেন (চাকরিচ্যূত) আব্দুল মাজেদের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে। শনিবার (১১ এপ্রিল) দিবাগত রাত ১২ টা ১ মিনিটে কেরানীগঞ্জে অবস্থিত ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে এই ফাঁসি কার্যকর করা হয়। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

শনিবার দুপুরে কেরানীগঞ্জে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে ফাঁসির রেকি করেছে জল্লাদরা। জল্লাদ শাজাহানের নেতৃত্বে এই জল্লাদ টিমটিতে রয়েছেন মনির ও সিরাজ। ফাঁসির প্রক্রিয়া সম্পন্ন হওয়ার আগেই শুক্রবার রাতে তার স্বজনরা কারাগারে শেষ দেখা করেছেন।

এদিকে, নতুন স্থাপিত ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে এটিই প্রথম ফাঁসি। এই প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হত্যা মামলায় মোট ৬ জনের ফাঁসি কার্যকর হলো। ২০১০ সালের ২৭ জানুয়ারি দিবাগত রাতে সৈয়দ ফারুক রহমান, বজলুল হুদা, এ কে এম মহিউদ্দিন আহমেদ, সুলতান শাহরিয়ার রশীদ খান ও মহিউদ্দিন আহমেদের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়। রায় কার্যকরের আগেই ২০০১ সালের জুনে জিম্বাবুয়েতে মারা যান আজিজ পাশা। পলাতক রয়েছেন খন্দকার আব্দুর রশিদ, নূর চৌধুরী, রাশেদ চৌধুরী, শরিফুল হক ডালিম ও মোসলেহ উদ্দিন।

এর আগে শুক্রবার বিকালে কারা কর্তৃপক্ষ মাজেদের পরিবারের সদস্যদের কাছে মোবাইলে ফোন করে শেষ দেখা করার তথ্য জানায়। শুক্রবার সন্ধ্যার পর মাজেদের স্ত্রী ডা. সালেহা বেগম, মাজেদের এক ভাই, এক বোন ও একজন ভাতিজাসহ ৫ জন কারাগারে দেখা করেন।

ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের একজন শীর্ষ কর্মকর্তা জানান, শনিবার সন্ধ্যার পর কারাগারের বন্দী সেলগুলো লক করে দেওয়া হয়েছে। কারাগারের আশেপাশে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। করোনা ভাইরাসের কারণে প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা হিসাবে যতটুকু সীমাবদ্ধতা আরোপ করা যায়-তাই করা হয়েছে।

গত ৮ এপ্রিল মৃত্যর পরোয়ানা পড়ে শোনানোর পর সব দোষ স্বীকার করে রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষা চান আব্দুল মাজেদ। প্রাণভিক্ষার আবেদনটি নাকচ করে দেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। প্রাণভিক্ষার আবেদন রাষ্ট্রপতি বাতিল করে দেয়ার পর সেই চিঠিটি কেন্দ্রীয় কারাগারে পৌঁছায়।

অস্ত্র মামলায় জি কে শামীমের জামিন প্রত্যাহার
                                  

অনলাইন ডেস্ক :

ঠিকাদারির মাফিয়া এস এম গোলাম কিবরিয়া শামীম ওরফে জি কে শামীমের অস্ত্র মামলায় জামিন প্রত্যাহার করা হয়েছে। আজ রবিবার জি কে শামীমের জামিন প্রত্যাহার করেন হাইকোর্ট। ক্যাসিনোবিরোধী অভিযানের সময় গত বছর গ্রেফতার হন জি কে শামীম।

জানা গেছে, গত ৪ ফেব্রুয়ারি মাদক মামলায় এক বছর অন্তর্বর্তীকালীন জামিন দেয় বিচারপতি মো. রেজাউল হক ও বিচারপতি ভীষ্মদেব চক্রবর্তীর সমন্বয়ে গঠিত হাই কোর্ট বেঞ্চ। আর ৬ ফেব্রুয়ারি বিচারপতি এ কে এম আসাদুজ্জামান ও বিচারপতি এস এম মুজিবুর রহমানের বেঞ্চ অস্ত্র মামলায় জি কে শামীমকে ছয় মাস জামিন দেয়।

উল্লেখ্য, গত বছরের সেপ্টেম্বরে ঢাকায় ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান শুরু করে র‌্যাব। ওই অভিযানে যুবলীগের শীর্ষ কয়েকজন নেতা ক্যাসিনোকাণ্ডে সম্পৃক্ত থাকার অভিযোগে গ্রেফতার হন। আলোচিত ঠিকাদার জি কে শামীমকে ২০ সেপ্টেম্বর গ্রেফতার করে র‌্যাব। পরদিন তার বিরুদ্ধে গুলশান থানায় অস্ত্র, মাদক, অর্থ পাচার ও অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে চারটি মামলা করা হয়।

এই চারটি মামলার মধ্যে ২৭ নভেম্বর ঢাকার বিশেষ ট্রাইব্যুনালের দেওয়া জামিন নামঞ্জুরের আদেশের বিরুদ্ধে হাই কোর্টে জামিন চান তিনি। মাদক মামলায় ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতের জামিন নামঞ্জুরের আদেশের বিরুদ্ধে হাই কোর্টে যান জি কে শামীম।

হাইকোর্টে আবারো খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন
                                  

অনলাইন ডেস্ক :

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ফের হাইকোর্টে জামিন আবেদন করেছেন। জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় জামিন আবেদন করেছেন তিনি। মঙ্গলবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) খালেদা জিয়ার আইনজীবী সগীর হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এ মামলায় বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি একেএম জহিরুল হকের আদালতে এ আবেদনের ওপর শুনানি হতে পারে।  এর আগে, ২০১৯ সালের ১২ ডিসেম্বর এ মামলায় তার জামিন আবেদন পর্যবেক্ষণসহ খারিজ করে দিয়েছিলেন আপিল বিভাগ।

গেল ২০১৮ সালের ২৯ অক্টোবর পুরান ঢাকার কেন্দ্রীয় কারাগারের প্রশাসনিক ভবনের সাত নম্বর কক্ষে স্থাপিত ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৫ এর বিচারক মো. আখতারুজ্জামান (বর্তমানে হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি) জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়াকে সাত বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেন। এ

একই সঙ্গে তাকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও ছয় মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। ওই বছরের ১৮ নভেম্বর হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এর বিরুদ্ধে আপিল করা হয়। ২০১০ সালের ৮ আগস্ট তেজগাঁও থানায় জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলা করা হয়। ট্রাস্টের নামে অবৈধভাবে তিন কোটি ১৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা লেনদেনের অভিযোগে মামলাটি করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। তদন্ত শেষে ২০১২ সালে খালেদা জিয়াসহ চারজনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেয় দুদক।

শাজাহান খানের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন ইলিয়াস কাঞ্চন
                                  

অনলাইন ডেস্ক :

মানহানির অভিযোগ তুলে ১০০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে পরিবহন শ্রমিকদের নেতা, সাবেক মন্ত্রী শাজাহান খানের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের চেয়ারম্যান ইলিয়াস কাঞ্চন। বুধবার ঢাকার এক নম্বর যুগ্ম জেলা জজ উৎপল ভট্টাচার্যের আদালতে এই মামলা দায়ের করা হয়।

তবে মামলার গ্রহণযোগ্যতার বিষয়ে পরে শুনানি হবে বলে জানিয়েছেন ইলিয়াস কাঞ্চনের আইনজীবী মো. রেজাউল করিম। গত ৮ ডিসেম্বর নারায়ণগঞ্জে এক অনুষ্ঠানে কাঞ্চনের সম্পদ নিয়ে প্রশ্ন তোলেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি শাজাহান খান। তার পরিপ্রেক্ষিতেই মানহানির মামলাটি হয়েছে।

জানা যায়, ইলিয়াস কাঞ্চন কোথা থেকে কত টাকা পান, কী উদ্দেশ্যে পান, সেখান থেকে কত টাকা নিজে নেন, পুত্রের নামে নেন, পুত্রবধূর নামে নেন সেই হিসাবটা শাজাহান খান জনসম্মুখে তুলে ধরবে বলে একটি বক্তব্য দেন।

পরে ওই বক্তব্যকে মিথ্যা ও বানোয়াট বলে দাবি জানায় ইলিয়াস কাঞ্চন। এসময় শাজাহান খানের এমন বক্তব্য প্রত্যাহারের জন্য ২৪ ঘণ্টার আলটিমেটাম দিয়েছিল। তবে শাজাহান খান বক্তব্য প্রত্যাহার কিংবা ক্ষমা প্রার্থনা করেননি উল্লেখ করে মামলাটি করা হয়েছে বলে জানানো হয়।

ফিটনেসবিহীন গাড়ি রাস্তায় চলতে পারবে না: হাইকোর্ট
                                  

অনলাইন ডেস্ক :

দেশের সব এলাকায় ফিটনেস নবায়ন না করা গাড়ি রাস্তায় চলতে পারবে না বলে মন্তব্য করেছেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে ফিটনেসহীন গাড়ি এখনও কীভাবে চলছে, বিআরটিএ ও পুলিশ কর্তৃপক্ষকে আগামী রোববারের মধ্যে তা জানাতে বলা হয়েছে।

বুধবার (১২ ফেব্রুয়ারি) হাইকোর্টের বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কে এম হাফিজুল আলমের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চে এ আদেশ দেন। এদিন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) এ বিষয়ে একটি প্রতিবেদন জমা দেন হাইকোর্টে।

বিআরটিএর আইনজীবী রাফিউল ইসলাম বলেন, গত বছরের ২৩ অক্টোবর পর্যন্ত প্রায় ৫ লাখ গাড়ি ফিটনেস নাবয়নের বাইরে ছিল। ওই দিন আদালত আদেশ দিয়েছেন- ফিটনেস নবায়ন না করা গাড়িকে পেট্রোল পাম্প থেকে জ্বালানি না দিতে। ওই আদেশ অনুসারে বিআরটিএ ব্যবস্থা নিয়েছে। প্রত্যেক পেট্রোল পাম্পকে চিঠি দেয়া হয়েছে। তারা এ বিষয়ে ব্যানার লাগিয়েছে এবং ফিটনেস খেলাপি গাড়িকে জালানি দিচ্ছে না। এসবের সচিত্র প্রতিবেদন আদালতে দেখিয়েছি।

গত ২৪ জুন আদালত ঢাকাসহ সারাদেশে ফিটনেসবিহীন গাড়ির তথ্য জানতে চেয়েছিলেন। সে অনুসারে হাইকোর্টে এ প্রতিবেদন দেয় বিআরটিএ।

গাড়ি ও চালকের লাইসেন্স এবং ফিটনেসবিহীন গাড়ি সংক্রান্ত একটি ইংরেজি দৈনিকে গত ২৩ মার্চ প্রকাশিত প্রতিবেদন আদালতের নজরের আনেন অ্যাডভোকেট সৈয়দ মামুন মাহবুব। এরপর ওই দিন আদালত রুলসহ আদেশ দেন।

৩৬তম বিসিএসের ৩৮ জনকে নিয়োগ দিতে হাইকোর্টের নির্দেশ
                                  

অনলাইন ডেস্ক :

৩৬তম বিসিএস ক্যাডারে সুপারিশপ্রাপ্তদের মধ্যে গেজেটে বাদ পড়া ৩৮ জনকে নিয়োগ দিতে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। রায়ে আদালত এই ৩৮ জনকে  ২০১৮ সালের ৩১ জুলাই তারিখে প্রকাশিত গেজেট এর তারিখ থেকে জ্যেষ্ঠতাসহ নিয়োগ দিতে নির্দেশ দিয়েছেন। আর এটা করতে হবে আদালতের রায় পাওয়ার ৬০ দিনের মধ্যে।

এ সংক্রান্ত রিটের ওপর চূড়ান্ত শুনানি শেষে বুধবার (৫ ফেব্রুয়ারি) বিচারপতি মো. আশরাফুল কামাল ও বিচারপতি রাজিক আল জলিলের দ্বৈত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রায় দেন।

আদালতে আবেদনের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী সালাহ উদ্দিন দোলন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ওয়ায়েস আল হারুনী।

রায়ের পরে সালাহ উদ্দিন দোলন বলেন, ‘বিভিন্ন ক্যাডারে বাংলাদেশ পাবলিক সার্ভিস কমিশন অন্যদের সঙ্গে তাদের বিষয়ে সুপারিশ করে। কিন্তু তারা নিয়োগ বঞ্চিত হন। পরে মো. জাহাঙ্গীর আলমসহ বাদ পড়া ৩৮ জন সুপারিশের তারিখ হতে নিয়োগ চেয়ে ২০১৯ সালে রিট করেন। আদালত ওই বছরের ১৯ ফেব্রুয়ারি রুল জারি করেন। বুধবার এ রুল যথাযথ ঘোষণা করে রায় দেন হাইকোর্ট।

এর আগে গত ২৮ জানুয়ারি ৩৪তম ও ৩৫তম বিসিএসে সুপারিশপ্রাপ্ত হওয়ার পরও নিয়োগ না পাওয়া আরো ২৭ জনকে নিয়োগের নির্দেশ দিয়েছিলেন হাইকোর্ট।


   Page 1 of 26
     আদালত
কুয়েতে পাপুলের আরো ৩ বছরের কারাদণ্ড
.............................................................................................
ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণ: মজনুর রায় বৃহস্পতিবার
.............................................................................................
ওসি প্রদীপসহ ২৯ জনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা
.............................................................................................
তিন দিনের রিমান্ডে শারমিন জাহান
.............................................................................................
সুপ্রিম কোর্টে প্রবেশে মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক
.............................................................................................
চিকিৎসা না দিয়ে রোগী ফেরত অভিযোগ তদন্তে হাইকোর্টের নির্দেশ
.............................................................................................
ওয়াসার পানির দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্তে হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা
.............................................................................................
ঢাকা লকডাউন হবে কিনা, সিদ্ধান্ত সরকারের : হাইকোর্ট
.............................................................................................
ভার্চুয়াল আদালতে সহস্রাধিক আসামির জামিন
.............................................................................................
ভিডিও কনফারেন্সে নিম্ন আদালতে শুধুমাত্র জামিন শুনানির নির্দেশ
.............................................................................................
বঙ্গবন্ধুর খুনি মাজেদের ফাঁসি কার্যকর
.............................................................................................
অস্ত্র মামলায় জি কে শামীমের জামিন প্রত্যাহার
.............................................................................................
হাইকোর্টে আবারো খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন
.............................................................................................
শাজাহান খানের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন ইলিয়াস কাঞ্চন
.............................................................................................
ফিটনেসবিহীন গাড়ি রাস্তায় চলতে পারবে না: হাইকোর্ট
.............................................................................................
৩৬তম বিসিএসের ৩৮ জনকে নিয়োগ দিতে হাইকোর্টের নির্দেশ
.............................................................................................
খালেদা জিয়ার জামিন বাড়ল এক বছর
.............................................................................................
এস কে সিনহাসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের আদেশ
.............................................................................................
মতিউর রহমানসহ ছয়জনকে গ্রেফতার ও হয়রানি না করার নির্দেশ
.............................................................................................
ঢাবি শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ : আদালতে মজনুর স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি
.............................................................................................
আবরার হত্যা মামলা আম‌লে নেওয়া হবে ২১ জানুয়া‌রি
.............................................................................................
পিলখানা হত্যা মামলায় ১৩৯ জনের মৃত্যুদণ্ড বহাল রেখে হাইকোর্টের পূণাঙ্গ রায় প্রকাশ
.............................................................................................
ওয়ানটাইম প্লাস্টিক পণ্যের ব্যবহার নিষিদ্ধ
.............................................................................................
বিচার প্রক্রিয়ার বিশ্বাসযোগ্যতা রক্ষা করতে হবে : প্রধান বিচারপতি
.............................................................................................
বরগুনায় রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় আসামির বিরুদ্ধে চার্জ গঠন
.............................................................................................
দুর্নীতির মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন শুনানি আজ, নিরাপত্তা জোরদার
.............................................................................................
মিথিলা-ফাহমির ব্যক্তিগত ছবি সরানোর নির্দেশ
.............................................................................................
সব কিছুর সীমা থাকা উচিত: প্রধান বিচারপতি
.............................................................................................
খালেদার জামিন শুনানিতে হট্টগোল বিচারপতিদের এজলাস ত্যাগ
.............................................................................................
নুসরাত হত্যা: অধ্যক্ষ সিরাজসহ মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ৪ আসামির আপিল
.............................................................................................
সিসি ক্যামেরা বসিয়েও অনিয়ম দূর হচ্ছে না: প্রধান বিচারপতি
.............................................................................................
বিএনপির অজ্ঞাত ৫০০ নেতাকর্মীর নামে মামলা
.............................................................................................
তামিম চৌধুরীর নেতৃত্বে হলি আর্টিজানে হামলা: আদালতের পর্যবেক্ষণ
.............................................................................................
হলি আর্টিজানে হামলা মামলার রায় জঙ্গিবাদ প্রশমনে যুগান্তকারী : এটর্নি জেনারেল
.............................................................................................
মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামির মাথায় ‌আইএসের টুপি
.............................................................................................
হলি আর্টিজান হামলা মামলায় ৭ জঙ্গির মৃত্যুদণ্ড
.............................................................................................
১৫ দিনের মধ্যে ঢাকার আশপাশের সব ইটভাটা বন্ধের নির্দেশ
.............................................................................................
দুই মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন বাড়লো
.............................................................................................
মীর নাসিরের ১৩, ছেলের ৩ বছরের সাজা বহাল
.............................................................................................
হলি আর্টিজান মামলার রায় ২৭ নভেম্বর
.............................................................................................
আবরার হত্যার বিচার হবে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে
.............................................................................................
প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার হুমকি: বিএনপি নেতার ৩ বছরের কারাদণ্ড
.............................................................................................
মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আজহারের আপিলের রায় বৃহস্পতিবার
.............................................................................................
অস্ত্র মামলায় ৫ দিনের রিমান্ডে সেই মিজান
.............................................................................................
জামিন নামঞ্জুর কারাগারে সম্রাট
.............................................................................................
নুসরাত হত্যায় অধ্যক্ষ সিরাজ উদদৌলাসহ ১৬ জনের মৃত্যুদণ্ড
.............................................................................................
নুসরাত হত্যা মামলার রায় আজ
.............................................................................................
ফিটনেস নবায়ন না করা গাড়িকে জ্বালানি নয়: হাইকোর্ট
.............................................................................................
আবরারের রুমমেট মিজান পাঁচ দিনের রিমান্ডে
.............................................................................................
হাইকোর্টের নতুন ৯ অতিরিক্ত বিচারপতির শপথ
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
সম্পাদক ও প্রকাশক : জিয়াউল হক ।
নির্বাহী সম্পাদক : মো: হাবিবুর রহমান । এম, এ হাসান : সম্পাদক কর্তৃক বিএস প্রিন্টিং প্রেস ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড, সুত্রাপুর ঢাকা খেকে মুদ্রিত
ও ৬০/ই/১ পুরানা পল্টন (৭ম তলা) থেকে প্রকাশিত বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৫১,৫১/ এ রিসোর্সফুল পল্টন সিটি (৪র্থ তলা), পুরানা পল্টন, ঢাকা -১০০০।
ফোনঃ-০২-৯৫৫০৮৭২,-মোবাইলঃ- ০১৭১৬-৯১১৫৭২

E-mail: provatikhoborbd@gmail.com,provatikhobor2014@gmail.com,
Web: www.dailyprovatikhobor.com

   All Right Reserved By www.dailyprovatikhobor.com Developed By: Dynamic Solution IT Dynamic Scale BD & BD My Shop